Logo
আজঃ বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম

সর্দি-কাশি ভালো হচ্ছে না? জেনে নিন কী করবেন

প্রকাশিত:শনিবার ৩০ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৪২০জন দেখেছেন

Image

লাইফস্টাইল ডেস্ক : শীতের সময়ে আপনার অন্যতম সঙ্গী হতে পারে সর্দি আর কাশি। যদিও আপনি তাদের চান না, কিন্তু তারা নাছোড়বান্দা। এই ঠান্ডার দিনে নিত্যসঙ্গী সর্দি-কাশিকে বিদায় করার জন্য নানা প্রচেষ্টা চালিয়েও ব্যর্থ হয়েছেন? আসলে এসময় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কিছুটা দুর্বল হয়ে যাওয়াতে অসুখ-বিসুখ সহজেই কাবু করে ফেলতে পারে। আবার একবার জায়গা করে নিলে সহজে যেতে চায় না। তাই এসময় মেনে চলতে হবে কিছু নিয়ম। চলুন জেনে নেওয়া যাক এই শীতে সর্দি-কাশি সারাতে চাইলে কী করবেন-

১. হাইড্রেট থাকুন
বছরের অন্যান্য সময়ের মতো শীতের সময়েও আপনাকে হাইড্রেটেড থাকতে হবে। তবে শীতের সময়ে এদিকে একটু বেশিই নজর রাখতে হবে। সেজন্য পর্যাপ্ত পানি, ফলের রস, হালকা সুপ, মধু সহ উষ্ণ লেবু পানি পান করলে উপকার পাবেন। এতে দিনভার আপনি সতেজ থাকবেন আর ডিহাইড্রেট অনুভব করবেন না। তবে হাইড্রেট থাকার জন্য আবার ক্যাফেইন বা অ্যালকোহল পান করতে যাবেন না। কারণ এগুলো হাইড্রেট তো করেই না, বরং ডিহাইড্রেশন বাড়িয়ে দেয়। তাই এ ধরনের পানীয় থেকে দূরে থাকুন।

২. গার্গল করুন
হালকা গরম পানি ও লবণ একসঙ্গে মিশিয়ে দিনে অন্তত দুইবার গার্গল করবেন। এভাবে গার্গল করলে গলাব্যথাএবং সর্দি-কাশি থেকে মুক্তি পাওয়া সহজ হয়। গলায় আরাম পাওয়া যায়। সেই সঙ্গে দূর হয় মুখের ভেতরে থাকা অনেক ক্ষতিকর জীবাণুও। তবে ৬ বছরের কম বয়সী শিশুদের ক্ষেত্রে গার্গল করার সময় বিশেষ ভাবে সতর্ক থাকতে হবে।

৩. জিঙ্ক লজেন্স খান
দ্রুত আপনাকে সর্দি-কাশি থেকে মুক্ত করতে কাজ করতে পারে জিঙ্ক লজেন্স। বিশেষজ্ঞরাও সর্দি-কাশির সমস্যায় এই লজেন্স খাওয়ার পরামর্শ দেন। তবে আপনি যদি অ্যান্টিবায়োটিক খেয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে জিঙ্ক খাওয়ার আগে অবশ্যই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন। কারণ এই দুইয়ের সংমিশ্রণ ওষুধের কার্যকারিতা কমিয়ে দিতে পারে। জিঙ্ক লজেন্স খেলে তা আপনার শরীরের আপনার রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এবং বিপাককে শক্তিশালী করতে সাহায্য করবে।

৪. নোজাল স্প্রে ব্যবহার করুন
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ট্যাবলেটের চেয়ে নোজাল স্প্রে দ্রুত ও ভালো কাজ করে। কারণ ডিকনজেস্ট্যান্টগুলো প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই অবরুদ্ধ নাকে পৌঁছায়। এই স্প্রে ব্যাকটেরিয়া মেরে ফেলতে, ব্যথা কমাতে এবং সর্দি-কাশির উপসম করতে কাজ করে। সেই সঙ্গে আপনাকে অবশ্যই পরিষ্কার পানি ব্যবহার করতে হবে, নয়তো সংক্রমণ মারাত্মক হয়ে উঠতে পারে।

৫. বিশ্রাম নিন
ঠান্ডার প্রকোপ থেকে মুক্তি পাওয়া এবং সুস্থ হওয়ার জন্য পর্যাপ্ত বিশ্রাম নেওয়া জরুরি। তাই সর্দি-কাশি দেখা দিলে কাজ থেকে বিরতি নিয়ে বিশ্রাম নেওয়ার চেষ্টা করুন। এভাবে ঘরোয়া উপায় অবলম্বন করে সুস্থ হতে পারবেন। তবে সমস্যা বেশি মনে হলে বসে না থেকে দ্রুত একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।


আরও খবর



বেলজিয়ামের বিপক্ষে কেইনকে পাচ্ছে না ইংল্যান্ড

প্রকাশিত:সোমবার ২৫ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image

চোট নিয়ে ইংল্যান্ড দলে যোগ দেওয়া হ্যারি কেইনের খেলা নিয়ে শঙ্কা ছিল আগে থেকেই। শেষ পর্যন্ত সেই শঙ্কাই সত্যি হয়। ব্রাজিলের বিপক্ষে পারেননি তিনি মাঠে নামতে। বেলজিয়ামের বিপক্ষেও টাকে পাওয়া যাবে না বলে নিশ্চিত করে দিলেন দলটির কোচ গ্যারেথ সাউথগেট। ৩০ বছর বয়সী কেইনকে তার ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখে পাঠিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সেখানেই অ্যাঙ্কেলের চোট থেকে সেরে ওঠার কাজ চালিয়ে যাবেন এই স্ট্রাইকার।

আন্তর্জাতিক ফুটবলের বিরতির আগে বুন্ডেসলিগায় বায়ার্নের শেষ ম্যাচে অ্যাঙ্কেলে চোট পান কেইন। ডার্মস্টাডের বিপক্ষে ৫-২ গোলে জয়ের ম্যাচের শেষ দিকে গোলপোস্টের সঙ্গে বেকায়দায় ধাক্কা খান তিনি। এরপর তাকে তুলে নেওয়া হয়। ওই ম্যাচে একটি গোলও করেন এই ফুটবলার। তখন থেকেই তার খেলা নিয়ে জাগে অনিশ্চয়তা। তবুও জাতীয় দলের সঙ্গে যোগ দেন কেইন। ব্রাজিলের বিপক্ষে শনিবার দলের ১-০ গোলে হেরে যাওয়া প্রীতি ম্যাচে স্কোয়াডেও ছিলেন না তিনি। পুরোটা সময় গ্যালারিতে বসে খেলা উপভোগ করেন টটেনহ্যাম হটস্পারের সাবেক ফরোয়ার্ড।

ওই ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে সাউথগেট জানান, বেলজিয়ামের বিপক্ষেও কেইনকে পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই। আগামী মঙ্গলবার ঘরের মাঠ ওয়েম্বলিতে প্রীতি ম্যাচটি খেলবে ইংলিশরা। বায়ার্নের পরের ম্যাচ আগামী শনিবার, বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে। এরপর হাইডেনহাইমের সঙ্গে লিগ ম্যাচের পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার-ফাইনালের প্রথম লেগে আর্সেনালের মুখোমুখি হবে দলটি।


আরও খবর



ফিলিস্তিনকে স্বীকৃতি দিতে ‘প্রস্তুত’ স্পেনসহ ইউরোপের ৪ দেশ

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৮০জন দেখেছেন

Image

ফিলিস্তিন আলাদা রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দিতে সম্মত হয়েছে চার ইউরোপীয় দেশ স্পেন, আয়ারল্যান্ড, মাল্টা ও স্লোভেনিয়া। শুক্রবার ব্রাসেলসে ইউরোপীয় কাউন্সিলের বৈঠকের পর চার দেশের সম্মতির এ কথা জানান স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ। 

পূর্ব জেরুজালেমকে রাজধানী করে আলাদা ফিলিস্তিনি রাষ্ট্র গঠন ফিলিস্তিনি জনগণের বহুদিনের স্বপ্ন। সাম্প্রতিক সময়ে বিষয়টি ব্যাপক আলোচনা পেয়েছে। স্পেনের প্রধানমন্ত্রী বলেন, কাউন্সিলের সমাবেশের ফাঁকে আইরিশ, মাল্টিজ এবং স্লোভেনিয়ান নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর এই চুক্তি হয়েছে। তিন দেশের সঙ্গে মিলে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার প্রথম পদক্ষেপ নিয়েছে স্পেন।

বৈঠকের পর এক যৌথ বিবৃতিতে আয়ারল্যান্ড বলেছে, দীর্ঘস্থায়ী শান্তি ও স্থিতিশীলতা অর্জনের একমাত্র উপায় হলো একটি দ্বি-রাষ্ট্রীয় সমাধান বাস্তবায়ন করা। তবেই শান্তি ও নিরাপত্তায় বসবাস করতে পারবে ইসরায়েলি ও ফিলিস্তিনিরা। ১৯৮৮ সাল থেকে জাতিসংঘের ১৯৩টি সদস্য রাষ্ট্রের মধ্যে ১৩৯টি ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দিয়েছে।


আরও খবর



ফিলিস্তিনের গাজায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩২ হাজার ৩৩৩ জন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৭২জন দেখেছেন

Image

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা ভূখণ্ডে ইসরায়েলি হামলায় আরও শতাধিক ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছেন। এতে করে উপত্যকাটিতে নিহতের মোট সংখ্যা পৌঁছেছে ৩২ হাজার ৩৩৩ জনে।

এছাড়া গত অক্টোবর থেকে চলা এই হামলায় আহত হয়েছেন আরও ৭৪ হাজারের বেশি ফিলিস্তিনি। সোমবার (২৫ মার্চ) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তাসংস্থা সিনহুয়া। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলমান ইসরায়েলি আগ্রাসনে গাজা উপত্যকায় নিহত ফিলিস্তিনিদের সংখ্যা বেড়ে ৩২ হাজার ৩৩৩ জনে পৌঁছেছে বলে গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সোমবার এক প্রেস বিবৃতিতে জানিয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ইসরায়েলি সেনাবাহিনী ১০৭ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে এবং হামলায় আরও ১৭৬ জন আহত হয়েছেন। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুসারে, এতে করে গত বছরের ৭ অক্টোবর ইসরায়েলের আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে মোট মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৩২ হাজার ৩৩৩ জনে। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও ৭৪ হাজার ৬৯৪ জন মানুষ।


আরও খবর



ভিয়েতনামে বাংলাদেশ দূতাবাসে গণহত্যা দিবস পালন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৬ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৭৮জন দেখেছেন

Image

ভিয়েতনামের হ্যানয়স্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে ২৫ মার্চ যথাযোগ্য মর্যাদায় ও ভাবগম্ভীর পরিবেশে গণহত্যা দিবস পালন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের কালোরাতে নিহত সকল শহীদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন, মোমবাতি প্রজ্বলন এবং তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়। 

পরে দিবসটি উপলক্ষ্যে প্রদত্ত রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর বাণী পাঠ করে শোনানো হয় এবং দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনার পর্বে মূল বক্তব্য রাখেন রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ লুৎফর রহমান। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন মিশনের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান নাসিরউদ্দীন। 


আরও খবর



জমজমাট ঈদ কেনাকাটা, গরমে আরামে নজর ক্রেতাদের

প্রকাশিত:শনিবার ২৩ মার্চ ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image
আর দুই সপ্তাহ পরেই ঈদ। ইতোমধ্যে জমে উঠেছে রাজধানীর ঈদ বাজার। মূলত গতকাল থেকেই শুরু হয়েছে ঈদের কেনাকাটা। ফুটপাত থেকে শুরু করে অভিজাত বিপণিবিতানগুলোতে ক্রেতাদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। রোদ ও গরম উপেক্ষা করে পরিবার-পরিজনদের জন্য নতুন পোশাক কিনতে রাজধানীর বিপণিবিতানগুলোতে ভিড় করছেন নানা বয়সী মানুষ। ক্রেতা-বিক্রেতাদের দরদামে সকাল থেকে মধ্যরাত পর্যন্তও চলছে কেনাবেচা। ফুটপাত ও ভ্যানগাড়িতে অস্থায়ীভাবে বসা দোকানেও কেনাকাটা চলছে পুরোদমে। গতকাল রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এ চিত্র দেখা যায়। 

রাজধানীর বসুন্ধরা সিটি, মহাখালী এসকেএসসহ বিভিন্ন শপিংমল ছিল লোকে লোকারণ্য। মানুষ নিজেদের সাধ্যমতো প্রিয়জনদের জন্য কেনাকাটায় ব্যস্ত ছিলেন। এসব মার্কেটের ভিতরে ও আশপাশের রাস্তাগুলোতেও হাঁটার মতো অবস্থা ছিল না। সবখানেই ক্রেতাদের ভিড়। বিক্রেতারা বাহারি রঙের সব পোশাক সাজিয়ে রেখেছেন। কেউ পোশাক শরীরে ট্রায়াল দিচ্ছেন। কেউবা বাচ্চাদের পোশাক কেনায় ব্যস্ত। কেউবা শাড়ি, কসমেটিকস, গহনা, জুতার দোকানে ভিড় জমিয়েছেন। ছেলেদের পাঞ্জাবির দোকান গুলোতেও ছিল চোখে পড়ার মতো ভিড়। থেমে নেই কেউ, সবাই ছুটছেন পছন্দের পোশাকের সন্ধানে। ভিড়ের কারণে ক্রেতার সঙ্গে বেশিক্ষণ কথা বলারও সুযোগ পাচ্ছেন না বিক্রেতারা। এর মধ্যেই পছন্দের কাপড় কিনছেন ক্রেতারা। ছেলেরা বেশি কিনছেন শার্ট, প্যান্ট, টি-শার্ট ও পাঞ্জাবি। আর তরুণী ও নারীরা কিনছেন শাড়ি, থ্রি-পিস ও ফ্রক। এ ছাড়া জুতার দোকানেও বিক্রি বেড়েছে অনেক।

রাজধানীর বসুন্ধরা সিটিতে পাওয়া যাচ্ছে নতুন নতুন কালেকশনের বাহারি কারুকাজ, হাতের নকশা, নানা রঙের কাপড়সহ বিভিন্ন ধরনের নতুন পোশাক। নতুন সাজে সেজেছে ফ্যাশন হাউসগুলো। ক্রেতারা বলেন, বসুন্ধরা সিটিতে এক জায়গাতেই সব ধরনের সামগ্রী একসঙ্গে পাওয়া যায়। এ মার্কেট শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত পরিবেশে থাকায় কেনাকাটাও আনন্দদায়ক। ফ্যাশন হাউস ইয়োলোর এক বিক্রয় কর্মী জানান, ঈদ এবং গরমকে প্রাধান্য দিয়ে ডিজাইনে আনা হয়েছে নতুনত্ব। গরমকে প্রাধান্য দিয়ে তৈরি করা এসব পোশাকের দাম রাখা হয়েছে ক্রেতার সাধ্যের মধ্যেই। এ ছাড়াও বসুন্ধরা সিটির বিভিন্ন শো-রুম, নিপুণ, সৃষ্টি, সাদাকালো, দেশাল, রঙ বাংলাদেশ, কে-ক্রাফট, অঞ্জন্স, জ্যোতি, জেন্টস পয়েন্টসহ বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসের শো-রুম ঘুরে দেখা গেছে ক্রেতাদের ভিড়। পছন্দ হলেই কিনছেন ক্রেতারা। 

মহাখালী এসকেএস মার্কেটে দেখা যায়, ঈদকে ঘিরে নিত্যনতুন ডিজাইনের পোশাকের পসরা সাজিয়ে বসেছেন ব্যবসায়ীরা। এখানে পাঞ্জাবি, পায়জামা, শাড়ি, থ্রি-পিস, শার্ট, টি-শার্ট, প্যান্ট, কসমেটিকস, জুয়েলারিসহ সব ধরনের আইটেমই রয়েছে। প্রতিটি দোকানেই ক্রেতাদের ভিড়। সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ক্রেতা কম থাকলেও বিকালের পর থেকে বাড়তে থাকে মানুষের উপস্থিতি। আন্তর্জাতিক ব্র্যান্ড জিওর্দানোর বিক্রয়কর্মী নাসিমুল হক হৃদয় বলেন, আমাদের এখানে প্রত্যাশা অনুযায়ী বেচাকেনা চলছে। প্রত্যাশা করছি সামনের দিনগুলোতে আরও বিক্রি বাড়বে। আমাদের এখানে ছেলেদের ইমপোর্ট করা সব ধরনের পোশাক পাওয়া যাচ্ছে। শার্টের জন্য বিখ্যাত আমাদের ব্র্যান্ড।

আরও খবর