Logo
আজঃ শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

প্রবাসে কোথায় আছেন? পরিবারকে জানাবে ইমো

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৮ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : ‘শেয়ারিং ইজ কেয়ারিং’ এই ধারণা থেকে উদ্বুদ্ধ হয়ে সম্প্রতি লোকেশন-ভিত্তিক শেয়ারিং ও ইন্টার‍্যাকশন ফিচার ‘ইমো নাও’ নিয়ে এলো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ইনস্ট্যান্ট মেসেজিং অ্যাপ ইমো। ফিচারটি ব্যবহার কারীদের নিরাপত্তা বৃদ্ধি করবে ও তাদের মধ্যে পারিবারিক বন্ধন সুদৃঢ় করতে সহায়তা করবে।

পরিবারের সদস্যদের সাথে সপ্তাহের প্রতিদিন ২৪ ঘণ্টা একসাথে থাকতে ইমো একটি নতুন ফিচার নিয়ে এসেছে, যেন ব্যবহার কারীরা পরিবারের সদস্যদের সাথে লোকেশন ও পরিস্থিতির তথ্য শেয়ার করার সুযোগ পান। ফিচারটি একদিকে কেবল দুশ্চিন্তাই কমাবে না, পাশাপাশি পরিবারের সদস্যদের দূরত্ব যাই হোক না কেন সব সময় তাদের কাছাকাছি রাখবে।

উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, পড়াশোনা সম্পর্কিত কোনো কাজে আটকে গিয়ে একজন ছাত্রের বাড়ি ফিরতে দেরি হচ্ছে। রাতে দেরি করে বাসায় ফেরার সময় সে ‘ইমো নাও’ থেকে রুট শেয়ার করার সুযোগ পাবে। এতে করে সে বাড়ি ফিরে এসেছে কি না তা তার পরিবারের সদস্যরা দেখার সুযোগ পাবেন ও নিশ্চিন্ত হতে পারবেন। লোকেশন শেয়ারিং, রুট শেয়ারিং, স্ট্যাটাস নোটিশ ও জিপিএস নেভিগেশনের মতো ফিচার ব্যবহার করে পরিবারের সদস্যদের সাথে লোকেশন শেয়ার ও যোগাযোগ করার সুযোগ পাবেন ব্যবহারকারী। ফলে পরিবারের সদস্যরা নিরাপদ ও সুরক্ষিত বোধ করতে পারবেন। 

যাতায়াত বা ভ্রমণে থাকার সময় যেকোনো জায়গায় যেকোনো ধরণের সমস্যা হলে পরিবারের সদস্যরা স্বয়ংক্রিয় ভাবে স্ট্যাটাস নোটিশ পাবেন। অর্থাৎ, পরিবারের সদস্যরা সবাই সবার সাথে কানেক্টেড থাকার সুযোগ পাবেন যা পরিবারের বন্ধনকেই আরও দৃঢ় করবে।

যে সব পরিবারের অর্থোপার্জনকারী সদস্যরা ভিন্ন কোনো শহর বা দেশে থাকেন, যেমন প্রবাসী শ্রমিকরা নিরাপত্তা ও হোমসিকনেসের কারণে উদ্বিগ্ন থাকেন। এসব ক্ষেত্রে তারা কোথায় আছেন তা পরিবারের সদস্যদের জানাতে ‘ইমো নাও’ খুব কার্যকরী হবে। এতে করে তাদের আত্মীয় স্বজনেরা নিশ্চিন্ত থাকার সুযোগ পাবেন। একইসাথে, প্রবাসে থাকা সদস্যটিও বাড়িতে থাকা তার সন্তান, সঙ্গী বা পরিবারের বয়স্ক সদস্যরা একটি ভার্চ্যুয়াল ম্যাপের মাধ্যমে কানেক্টেড থাকার সুযোগ পাবেন। 

যে কোনো লোকেশন আপডেটের ওপর ভিত্তি করে ‘ইমো নাও’ য়ের মাধ্যমে যখন পারিবারিক গ্রুপ ব্যবহার কারীরা একে অপরের সাথে যোগাযোগ করবেন তখন প্রবাসী বাংলাদেশীরাও এই যোগাযোগের কারণে নিজেদের হোমসিকনেস কমিয়ে আনার সুযোগ পাবেন। 

ইমোর বিজনেস ডিরেক্টর মেহরান কবির বলেন, ইমো’র কার্যকরী ভয়েস ও ভিডিও কলিং সেবার মাধ্যমে দূরত্ব কমিয়ে পরিবার গুলোকে কাছাকাছি রাখতে পেরে আমরা আনন্দিত। পরিবারের সকল সদস্যকে কানেক্টেড রাখতে এবং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বসবাসরত সদস্যদের দুশ্চিন্তা কমাতে নতুন এই ইমো নাও লোকেশন শেয়ারিং ফিচার নিয়ে এসেছি আমরা। এই ফিচারের সাহায্যে পরিবারের সদস্যরা একে অপরের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার মাধ্যমে পরিবার কেন্দ্রিক চেতনা অটুট রাখতে পারবেন। দূর প্রবাস অথবা কাছের কোনো গন্তব্যের উদ্দেশে ছুটে চলা – কোনো পরিস্থিতিতেই থাকবে না আর কোনো দুশ্চিন্তা।


আরও খবর

ইউটিউবিংয়ে ঝুঁকছে আখাউড়ার তরুনরা

মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে যা বললেন নুসরাত

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৭জন দেখেছেন

Image

হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছেন দুই বাংলার চিত্রনায়িকা নুসরাত ফারিয়া। বিষয়টি নিশ্চিত করে শুক্রবার রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছেন তিনি।পোস্টে তিনি লিখেছেন, ‘আলহামদুল্লিাহ, এখন আমি ভালো আছি। আপনাদের সবার দোয়া ও ভালোসাবার জন্য ধন্যবাদ।’

এর আগে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে হঠাৎ অচেতন হয়ে পড়েন নুসরাত। তাকে দ্রুত রাজধানীর বনানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

অভিনেত্রীর মা পারভিন আক্তার জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে হঠাৎ অচেতন হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত রাজধানীর বনানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

 জানা গেছে, শারীরিক দুর্বলতার কারণে অসুস্থ হয়ে পড়েন ফারিয়া। এর পর চিকিৎসক তাকে ইনজেকশন ও স্যালাইন দিলে কিছুটা সুস্থ বোধ করেন।

নুসরাত ফারিয়া মাজহার একজন বাংলাদেশি চলচ্চিত্র অভিনেত্রী, মডেল, টেলিভিশন উপস্থাপক এবং রেডিও জকি। ঢালিউড ও টালিউডে বেশিরভাগ চলচ্চিত্রে কাজ করেন অভিনেত্রী। ২০১৫ সালে বাংলাদেশ-ভারত যৌথ প্রযোজনার ‘আশিকী’ চলচ্চিত্র দিয়ে তার বড়পর্দায় অভিষেক হয়। এই কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ নবীন অভিনয়শিল্পী বিভাগে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অর্জন করেন।

তার প্রথম চলচ্চিত্রের সাফল্যের পর তিনি ‘হিরো ৪২০’ (২০১৬), ‘বাদশা– দ্য ডন’ (২০১৬), ‘প্রেমী ও প্রেমী’ (২০১৭) এবং ‘বস ২: ব্যাক টু রুল’ (২০১৭) এর মতো আরও বেশ জনপ্রিয় চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। সবশেষ ২০২৩ সালে তিনি শ্যাম বেনেগাল পরিচালিত ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ চলচ্চিত্রে শেখ হাসিনার চরিত্রে অভিনয় করেছেন।


আরও খবর

যে কারণে টাকা ফিরিয়ে দিলেন জয়া

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ঈধিকার পর এবার মিমি

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




সীমানা ছাড়ানো জয়ার জৌলুস

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫৫জন দেখেছেন

Image

জয়া আহসান, ‘ব্যাচেলর’ সিনেমা দিয়ে প্রথম পা রাখেন বড়পর্দায়। আলোচিত হয় প্রথম সিনেমাটি দিয়েই। দর্শকের নজরে কাড়েন সেই প্রথম সিনেমাই। এরপর তো শুধুই নতুন নতুন গল্প তার। হয়ে গেলেন দুই বাংলার নন্দিত অভিনেত্রী। দুই দেশের অসংখ্য সিনেমায় কাজ করে এমন বেশ কিছু সাফল্য পেয়েছেন জয়া যা তাকে শীর্ষস্থানে নিয়ে গেছে। সেই সূত্রে কাজ করেছেন বলিউডে। পুরুষদের মধ্যে যেমন ফেরদৌস আহমেদ নারীদের মধ্যে তেমন জয়া আহসান। বাংলাদেশ থেকে এ দুজন অভিনয় শিল্পীই একই সঙ্গে দুই বাংলায় দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে গেছেন। জয়া চরিত্রাভিনেত্রী হিসেবে প্রতিটি কাজে পরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের ভরসার প্রতিদান দিয়েছেন। তার অভিনয়ে মুগ্ধ হয়ে তাকে নিয়ে নতুন নতুন কাজের পরিকল্পনা করছেন দুই বাংলার নির্মাতারা।

এদিকে ইরানি পরিচালক মুর্তজা অতাশ জমজম পরিচালিত জয়া অভিনীত নতুন সিনেমা ‘ফেরেশতে’ প্রশংসিত হয়েছে। সিনেমাটির কলাকুশলীরা ভারতের গোয়া আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে বিশেষ অভ্যর্থনায় ঋদ্ধ হয়েছেন। বর্তমানে ইরানের চলচ্চিত্র উৎসবে তার সিনেমা ‘ফেরশতে’ প্রতিযোগিতা করছে। এই সিনেমাটি ঢাকা চলচ্চিত্র উৎসবেও উদ্বোধনী সিনেমা হিসেবে প্রদর্শিত হয়েছিল।

আর এ দিকে, এই ভালোবাসার মাসেই আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাচ্ছে জয়া অভিনীত সিনেমা ‘পেয়ারার সুবাস’। ওই সিনেমার প্রয়োজক শাহরিয়ার শাকিল জানান, সাত বছর পর জটিলতা কাটিয়ে গত বছরের নভেম্বরে সেন্সর সার্টিফিকেট পেয়েছে ‘পেয়ারর সুবাস’।

শোবিজে লম্বা ইনিংস খেলার প্রত্যয়ে মাঠে নামেন জয়া আহসান। বয়স পঞ্চাশের কোঠায় এলেও বর্তমানে দুই বাংলার সবচেয়ে কাক্সিক্ষত ও নন্দিত অভিনেত্রীতে পরিণত এই তারকা। ধারাবাহিক সাফল্য আর নব নব আনন্দে খবরে ভাসছেন। শুধু একের পর এক কাজ করা নয়, প্রতিটি সিনেমায় বক্স অফিসের সাফল্যকে অনেকটাই সুনিশ্চিত করেছেন। ঢাকা থেকে গিয়ে কলকাতার সিনেমায় এমন ঈর্ষণীয় জায়গা করে নেয়া অভিনেত্রী জয়া। যার সাফল্যের ধারা অব্যাহত রয়েছে তো বটে, বরং আরও প্রবল হচ্ছে। দেশের পাশাপাশি টলিউড সিনেমায় বাণিজ্যিক সাফল্য এবং প্রশংসা উভয়ই নিজের ক্যারিয়ারের প্রাপ্তির ঝুলিতে ভরেছেন। বাণিজ্যিক ধারার বাহিরে এসে অভিনয় মেধায় নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টায় সফল জয়া। অবশ্য বর্তমান সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিও অনেকটাই ডিজাইনার অ্যাক্টর নির্ভর। সেই চাহিদা এবং প্রত্যাশার ক্ষেত্রে জয়াও যে পরিণত মুখ, সঙ্গে গ্লামার আর ট্যালেন্টের প্যাকেজ। নায়িকা চরিত্রের গড়পড়তা ধারা থেকে বেরিয়ে চরিত্রনির্ভর অভিনয়ে সিদ্ধহস্ত জয়া। চরিত্রের খাতিরে তাই বারবার জয়াকেই বেছে নিচ্ছেন পরিচালকরা। জয়া বলেন, আমি চাইলে সুন্দর সেজে গাছের তলায় দাঁড়িয়ে বহু সিনেমা করতে পারতাম। করিনি। তার জন্য টাকার লোভ, খ্যাতির লোভ সংবরণ করেছি। চেয়েছিলাম ‘আনকনভেনশনাল’ কিছু করতে।

দেশ-বিদেশে নানা স্বীকৃতি ছাপিয়ে মাহমুদ দিদারের ‘বিউটি সার্কাস’ সিনেমায় অভিনয়ের জন্য পঞ্চমবারের মতো জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন জয়া। সিনেমায় সার্কাসের বিউটি চরিত্রে তার বাবা হত্যার প্রতিশোধের অদম্য লড়াই চালিয়েছেন। পুরস্কারটি জয়া উৎসর্গ করেছেন, যাত্রাশিল্পীদের প্রতিটি মানুষের প্রতি। নিজ দেশের পাশাপাশি ওপার বাংলাতেও একাধিক সিনেমায় নিজেকে শীর্ষ স্থানে রেখেছেন তিনি। তার সঙ্গে টেক্কা দিয়েও পিছিয়ে ছিল অনেকেই। বিশেষ করে ওপার বাংলার মিমি চক্রবর্তী, নুসরাত জাহান, পাওলী ধাম, শ্রাবন্তী চট্টপ্যাধায়দের পেছনে ফেলে বাংলাদেশের জয়াই ছিলেন সর্বাধিক আলোচনায়। কারণ ওপার বাংলার একাধিক নায়িকার সিনেমা মুক্তি পেলেও একই সময়ে মুক্তি পাওয়া জয়ার সিনেমাই দর্শকপ্রিয়তা পেয়েছে। এছাড়া একাধিক সিনেমায় সাফল্যের সূত্রে বলিউডেও কাজ করেছেন তিনি। সেখানেও তিনি তার মেধার স্বাক্ষর রেখেছেন। ফলে শীর্ষ নির্মাতা এবং প্রযোজকরা জয়াকে নিয়ে নতুন নতুন কাজের পরিকল্পনা করছেন।

অভিনেত্রীদের মধ্যে জয়ার শীর্ষস্থান দখলের সাফল্য ২০১৯ সাল থেকে। ওই বছর মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর মাহেন্দ্রক্ষণে ১৯ মার্চ মুক্তি পায় জয়া অভিনীত সিনেমা ‘অলাতচক্র’। আহমদ ছফার উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত সিনেমাটি ঘিরে দর্শকের আগ্রহ ছিল লক্ষ্যণীয়। মুক্তিযুদ্ধের পটভূমিতে আহমদ ছফার উপন্যাস অবলম্বনে হাবিবুর রহমান পরিচালিত ‘অলাতচক্র’ বাংলা ভাষায় প্রথম থ্রিডি চলচ্চিত্র। উপন্যাসে লেখক আহমদ ছফা দানিয়েলের জবানিতে নিজেকেই তুলে ধরেছেন। নিজের প্রেমিকারূপে সৃষ্টি করেছেন তায়েবা চরিত্রটি। যে চরিত্রে অভিনয় করে প্রশংসিত হোন জয়া আহসান। অবশ্য এর আগে টলিউড সুপারস্টার প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে জুটি বেঁধে ‘রবিবার’ সিনেমায় অভিন করেন জয়া। সিনেমাটি দর্শক-সমালোচকদের কাছে বেশ প্রশংসিত হয়। পাশাপাশি ২০১৯ সালে রিলিজ হয় ‘দেবী’, ‘বিজয়া’, ‘কণ্ঠ’ নামে আরও তিনটি সিনেমা। তিনটিই সুপারহিট। এরপর কোভিড মহামারি ধাক্কা সামলে আরও একাধিক কাজের মাধ্যমে নিজের ধারাবাহিকতা ঠিকই বজায় রাখেন জয়া। তবে চলতি বছরটি জয়ার জন্য সুবর্ণ সময়। দুর্গাপূজা উপলক্ষে ২০২২ সালের ১৯ অক্টোবর পশ্চিমবঙ্গে মুক্তি পায় চারটি নতুন সিনেমা। এর মধ্যে সৃজিত মুখার্জি নির্মিত জয়া অভিনীত ‘দশম অবতার’ ছিল মূল আলোচনায়। এ সিনেমায় প্রধান নারী চরিত্রে অভিনয় করেন জয়া। আর এই সিনেমাটিই দর্শক আগ্রহের মূলে ছিল। ব্যবসার দিক দিয়েও ছিল এগিয়ে। এ সিনেমায় দর্শকের সাড়ায় আপ্লুত জয়া আহসান বলেন, ‘দশম অবতার’কে এত ভালোবাসা দেওয়ার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। গত বছরের ২ জুন পশ্চিমবঙ্গে মুক্তি পায় জয়া অভিনীত সিনেমা ‘অর্ধাঙ্গিনী’। কৌশিক গাঙ্গুলি নির্মিত সিনেমাটি কয়েক মাস ধরে প্রেক্ষাগৃহে চলে। এমনকি চলতি বছরের অন্যতম সফল সিনেমা হিসেবে সুপারহিট তকমা পায়। ‘অর্ধাঙ্গিনী’ এবং ‘দশম অবতার’ সাফল্যের রেশ কাটতে না কাটতে ফের সাফল্য হাজির জয়ার দুয়ারে।


আরও খবর

যে কারণে টাকা ফিরিয়ে দিলেন জয়া

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ঈধিকার পর এবার মিমি

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




নাগরিকদের রাখাইন ছাড়ার নির্দেশ দিলো ভারত

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬২জন দেখেছেন

Image

বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর সঙ্গে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর সংঘর্ষ দিন দিন বড় আকার ধারণ করছে মিয়ানমারে। এমন অবস্থায় ক্রমঅবনতিশীল পরিস্থিতির কারণে ভারতীয়দের মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে না যেতে সতর্কতা জারি করেছে ভারত। এমনকি নাগরিকদের যারা সেখানে আছেন তাদের এখনই রাখাইন ছাড়তেও নির্দেশ দিয়েছে ভারত। এক প্রতিবেদনে এমনটি জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, জান্তা সেনাদের সঙ্গে বিরোধ, সংঘর্ষে কার্যত ভেঙে পড়েছে দেশটির নিরাপত্তা ব্যবস্থা। এমনকি বাংলাদেশ ও ভারতে বাড়ছে অনুপ্রবেশ। প্রাণে বাঁচতে সীমান্তে ভিড় জমাচ্ছেন মিয়ানমারের নাগরিকরা।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, নিরাপত্তা পরিস্থিতির অবনতি, টেলিযোগাযোগে বিঘ্ন, স্থল মাইন, নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের মারাত্মক সঙ্কট সেখানে। এর প্রেক্ষিতে মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশ সফরে না যেতে ভারতীয় সব নাগরিকদের পরামর্শ দেয়া হচ্ছে। যারা এরই মধ্যে ওই রাজ্যে অবস্থান করছেন তাদেরকে অবিলম্বে রাখাইন ত্যাগ করতে বলা হচ্ছে। 

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর সঙ্গে মিয়ানমারের আছে ১৬৪০ কিলোমিটার সীমান্ত। এর মধ্যে আছে সক্রিয় মিলিট্যান্টদের নাগাল্যান্ড এবং মনিপুর। গত সপ্তাহে সহিংসতা পুরোপুরি বন্ধ করার আহ্বান জানায় ভারত।

২০২১ সালের ১ ফেব্রুয়ারি সামরিক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতা দখলে নেয় মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী। এরপর থেকে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের দাবিতে ব্যাপকভাবে সহিংস বিক্ষোভের সাক্ষী হয়ে আসছে মিয়ানমার।


আরও খবর

ভেনেজুয়েলায় সোনার খনি ধসে নিহত ২৩ জন

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আমাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায়: নোরা ফাতেহি

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২৭জন দেখেছেন

Image

আলোচনার ঝড় তুলেছে পরিচালক আদিত্য দত্তর পরবর্তী সিনেমা ‘ক্র্যাক’। মুম্বাইয়ের বস্তি থেকে আন্ডারগ্রাউন্ড এক্সট্রিম স্পোর্টস জগতে একজন মানুষের যাত্রার গল্প নিয়ে নির্মিত হচ্ছে সিনেমাটি। যেখানে অভিনয় করেছেন— অর্জুন রাম পাল, বিদ্যুৎ জামাল ও নোরা ফাতেহি।

আগামী ২৩ ফেব্রুয়ারি মুক্তি পাবে ‘ক্র্যাক’ সিনেমা। কয়েকদিন আগে সিনেমাটির ট্রেইলার মুক্তি পেয়েছে। পুরো ট্রেইলার জুড়ে ধুন্ধুমার অ্যাকশন আর রোমান্সে ভরপুর, যা দেখে ভূয়সী প্রশংসা করছেন নেটিজেনরা।

এদিকে, সিনেমাটির শুটিংয়ের অভিজ্ঞতা নিয়ে ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআইয়ের সঙ্গে কথা বলেছেন নোরা ফাতেহি। স্টান্ট ডাবল ছাড়াই শুটিং করেন তিনি। এ বিষয়ে নোরা ফাতেহি বলেন, ‘অর্জুন (অর্জুন রামপাল) স্যার স্টান্ট করছিলেন, বিদ্যুৎ (বিদ্যুৎ জামাল) স্যারও স্টান্ট করছিলেন, তাই আমিও ডাবল ছাড়াই স্টান্ট করতে চাই। বিদ্যুতের সঙ্গে যখন একটি দৃশ্যের শুটিং করছিলাম, তখন আমরা দু'জনেই খুব দ্রুত যাচ্ছিলাম। হঠাৎ আমি পড়ে যাই। অন্যদিকে, আগের গতিতেই যাচ্ছিলেন বিদ্যুৎ। দড়িটি বিদ্যুতের কোমরে বাঁধা ছিল, আমি তার পেছনে ছিলাম। সে বুঝতে পারেনি আমি পড়ে গেছি, ফলে বিদ্যুৎ আমাকে টেনেহিঁচড়ে নিয়ে যায়, তাও কংক্রিটের রাস্তা দিয়ে।’

‘ক্র্যাক’ সিনেমায় বিদ্যুৎ জামালের বিপরীতে অভিনয় করেছেন নোরা ফাতেহি।  সিনেমাটির গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন অ্যামি জ্যাকসন। তা ছাড়া বিশেষ চরিত্রে দেখা যাবে ভারতীয় বাংলা সিনেমার অভিনেত্রী রুক্মিনী মৈত্রকে।


আরও খবর

যে কারণে টাকা ফিরিয়ে দিলেন জয়া

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ঈধিকার পর এবার মিমি

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




মোটা শরীর নিয়ে অনুশীলনে নেইমার

প্রকাশিত:রবিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৫জন দেখেছেন

Image

ইনজুরির কারণে দীর্ঘ ৪ মাস মাঠের বাইরে থাকার পর অবশেষে অনুশীলনে ফিরেছেন নেইমার জুনিয়র। শুক্রবার রাতে নিজের ক্লাব আল হিলালে যোগ দিয়েছেন ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার। অনুশীলনে ফিরে নিজের সতীর্থদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করছিলেন নেইমার। এমন সময় তার বেশি কিছু ছবি তোলা হয় এবং সেগুলো সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার করা হয়।

ছবিতে নেইমারকে কিছুটা স্থুলকায় মনে হয়েছিল। ক্যামেরা অ্যাঙ্গেলের কারণেই হয়তো এমনটি দেখা গেছে। তবে নেইমারের এই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও দেওয়া হয়। এতে আল হিলাল ভক্তরা প্রতিক্রিয়াও জানান। নেইমারের বাড়তি ওজনের কারণে তাকে খোাঁচাও দিয়েছেন সৌদি প্রো লিগের ক্লাবটির সমর্থকরা। অন্য আরেকটি ক্যামেরাতে দেখা যায়, নেইমারের ওজন ঠিকই আছে। সত্যিকারই যদি তার ওজন বেড়েই থাকে, তবু স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে তাকে বেশি ওজন কমাতে হবে না।

ফুটবল ক্যারিয়ারের বড় একটি সময় ইনজুরিতেই কেটেছে নেইমারের। কারণ ব্রাজিলিয়ান এই ফুটবলার অনেকটা ঝুঁকি নিয়েই খেলেন মাঠে। প্রায় সময়ই প্রতিপক্ষের রক্ষণ ভাঙতে ড্রিবলিংকে কৌশল হিসেবে কাজে লাগাতে চান নেইমার। অথচ তিনি চাইলেই সতীর্থদের বল সহযোগিতা নিয়েই সেটি করতে পারেন।

ড্রিবলিং করতে গিয়ে নেইমার নিজেই পড়েন বিপদে। এই ঝুঁকিপূর্ণ কৌশলে খেলতে গিয়েই অনেকবার ইনজুরিতে পড়েছেন নেইমার। তবে হয়তো আগামী দিনে বিষয়টি নিয়ে সতর্ক থাকবেন তিনি। আর ভক্তদের খোঁচার জবাবে নিজেকে আগের চেয়েও শক্তিশালী করেই মাঠে ফিরবেন নেইমার।


আরও খবর

আইপিএল শুরুর তারিখ নির্ধারণ

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪