Logo
আজঃ শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

ব্যবহারের যে ৫ ভুলে স্মার্টফোন দ্রুত নষ্ট হয়

প্রকাশিত:সোমবার ১১ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৪৪জন দেখেছেন

Image

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক : স্মার্টফোন ব্যবহারে কমবেশি কিছু ভুল করেন সবাই। এতে ধীরে ধীরে কমতে থাকে স্মার্টফোনের আয়ু। দ্রুত ফোনে নানান সমস্যা দেখা দেয়। তবে নতুন ফোন কেনার পর থেকেই যদি একটু খেয়াল করেন এবং সঠিক ভাবে ব্যবহার করেন তাহলে ফোনটার আয়ু বাড়বে তো বটেই, তাছাড়া আপনাকে সেই ফোন নিয়ে বারবার মেকানিকের কাছে বা সার্ভিস সেন্টারে দৌড়াতে হবে না।

সফটওয়্যার আপডেট
মাস ছয়েক আগেই হয়তো আমাদের ফোনে সফটওয়্যার আপডেট এসে পৌঁছেছিল। কিন্তু আমরা গুরুত্ব দিইনি। সফটওয়্যার যথাসময়ে আপডেট না করলে সাইবার ঝুঁকি বেড়ে যায়। তাই, অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে যথাসময়ে ফোনের সেটিংসে গিয়ে সফটওয়্যার আপডেট করে নেওয়া উচিত।

নকল চার্জার ব্যবহার
অনেক সময় চার্জারের দাম বেশি হওয়ার ফলে আমরা অথোরাইজ়ড বা অনুমোদিত চার্জার এড়িয়ে চলি। বাজার থেকে একটা সস্তার চার্জার কিনে বসি, যা আখেরে ফোনের পক্ষে অত্যন্ত ক্ষতিকারক। এই ধরনের আনঅথোরাইজ়ড চার্জার গুলি সব সময়ই এড়িয়ে চলা উচিত।

যে কোনো অ্যাপকে অনুমতি দেওয়া
অ্যাপ গুলোকে বিভিন্ন তথ্যের অনুমতি দেওয়ার আগেও আপনার একটু ভাবা উচিত। কোন অ্যাপকে আপনার সম্পর্কে কতটা জানতে পারবে, সেটা একমাত্র আপনিই ঠিক করতে পারেন। তাই অ্যাপ গুলোকে আপনার সম্পর্কিত তথ্য গুলো জানতে দেওয়ার আগে একটু সতর্ক হোন।

অনিয়মিত ডাটা ব্যাকআপ
ডাটা হারিয়ে গেলে আমাদের বিরাট মুশকিলে পড়তে হয়। নিয়মিত ডাটাব্যাক আপ করেন না অনেকেই। ফলে যে কোনো মুহূর্তে বিপদে পড়তে পারেন। ফোন যদি হারিয়ে বা চুরি হয়ে যায় বা কোনো কারণে খারাপই হয়ে যায়, তাহলে সেই ডাটার কী অবস্থা হবে, বুঝতে পারছেন নিশ্চয়ই। তাই, নির্দিষ্ট সময়ে ফোনের ডেটা ব্যাকআপ করুন।

ব্যাটারি অতিরিক্ত চার্জ
ফোন দ্রুত খারাপ হয়ে যায় ওভার চার্জিংয়ের কারণে। ফোন বেশি দিন টিকিয়ে রাখতে, বিশেষ করে তার ব্যাটারি বাঁচিয়ে রাখতে ডিভাইসটিকে যথাযথ চার্জ দিতে হবে। কোনো স্মার্টফোন ১০০ শতাংশ চার্জ দেওয়া উচিত নয়। আবার ১৫ শতাংশের নিচে ব্যাটারি নামতে শুরু করলেই তা চার্জে বসানো উচিত।


আরও খবর

ইউটিউবিংয়ে ঝুঁকছে আখাউড়ার তরুনরা

মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ধামরাইয়ে বেতন বৃদ্ধির দাবিতে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কে শ্রমিকদের সড়ক অবরোধ

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪১জন দেখেছেন

Image

সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি : ঢাকার ধামরাইয়ে বেতন-ভাতা বৃদ্ধির দাবিতে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন ফ্রেম হাউস ফুটওয়্যার লিমিটেড নামে একটি জুতা কারখানার শ্রমিকরা।

শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ধামরাই থানা রোড এলাকায় ঢাকাগামী লেনে শ্রমিকরা এ অবরোধ করেন। এতে মহাসড়কে অন্তত ৩-৪ কিলোমিটার যানজটের সৃষ্টি হয়।

শ্রমিকরা জানান, প্রতি মাসে ৭,১০০ টাকা বেতন শ্রমিকদের। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে এই বেতনে তাদের স্বাভাবিক জীবন পরিচালনা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। শ্রমিকরা সর্বনিম্ন ১২,৫০০ টাকা বেতনের দাবি জানিয়ে আসছেন। বিষয়টি নিয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে একাধিকবার কথা বললেও তারা দাবি মেনে নেননি। এরই জেরে শনিবার শ্রমিকরা কারখানা সংলগ্ন মহাসড়কে অবরোধ করেন।

সারোয়ার হোসেন নামে এক শ্রমিক বলেন, আমরা ৭,১০০ টাকা করে বেতন পাই। এ নিয়ে মালিকদের কাছে দাবি জানিয়েছি। তারা মানেননি। তাই আন্দোলন করছি।

মোহাম্মদ আলী নামে আরেক শ্রমিক বলেন, হেল্পারদের ১২,৫০০ ও অপারেটরদের ১৫,৫০০ টাকা বেতন দিতে হবে এবং ৫ তারিখের মধ্যে বেতন পরিশোধ করতে হবে। এই দাবিতে আমরা কারখানার দুই হাজার শ্রমিক সড়কে নেমে আন্দোলন করছি।

সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম প্রোডাকশন) জামাল বসুনিয়া বলেন, পোশাক কারখানার শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধির গেজেট হলেও জুতা কারখানা শ্রমিকদের বিষয়ে গেজেট হয়নি। এরপরও শ্রমিকরা দাবি জানিয়েছেন। কর্তৃপক্ষ আগামী মাসেই বর্ধিত বেতন দেওয়ার কথা ভাবছে। বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

শিল্প পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) আনোয়ার হোসেন খান বলেন, পোশাক কারখানায় যে ন্যূনতম বেতন দেওয়া হয়েছে, জুতা কারখানা শ্রমিকরা তা পাননি। তাই একইভাবে বেতন বৃদ্ধির দাবিতে শ্রমিকরা আন্দোলনে নামেন। মালিকপক্ষ বলছে, তাদের বিষয়েতো গেজেট হয়নি। এ নিয়েই মূলত আন্দোলন। সকাল ৯টার দিকে তারা সড়ক অবরোধ করে। তবে প্রায় সাড়ে ১১টার তাদের বুঝিয়ে সড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়। বর্তমানে সড়কে যান চলাচল সচল হয়েছে।


আরও খবর



পিরোজপুরে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষার্থী নিহত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪৭জন দেখেছেন

Image

পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় দশম শ্রেণীর দুই শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। আজ বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৯ টার দিকে উপজেলার বড়ইবুনিয়া গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন বর‌ইবুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থী স্বাধীন এবং রহমত। এসময় আরেক শিক্ষার্থী তানভীর গুরুতর আহত হয়। তাকে পার্শ্ববর্তী গোপালগঞ্জ জেলা হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। 

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সুব্রত কুমার রায় জানান, বিদ্যালয়ে আসার পর একটি মোটর সাইকেলযোগে দশম শ্রেণীর ওই তিন শিক্ষার্থী বড়ইবুনিয়া থেকে মাটিভাংগা যাওয়ার পথে মোল্লা বাড়ি নামক স্থানে দুর্ঘটনা কবলিত হয়ে স্বাধীন এবং রহমান মারা যায়। সেখান থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে তানভীরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য পার্শ্ববর্তী গোপালগঞ্জ জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। 

এ বিষয়ে নাজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহ আলম হাওলাদার জানান, একটি মোটরসাইকেলযোগে তিন শিক্ষার্থী বিদ্যালয় থেকে মাটিভাংগা যাওয়ার পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার পাশে একটি বৈদ্যুতিক খুঁটিতে আঘাত করে। এসময় দুই শিক্ষার্থী মারা যায় এবং আরও একজন গুরুতর আহত হয়।


আরও খবর



জয়পুরহাটে হত্যা মামলায় ১৭ জনের যাবজ্জীবন

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪৭জন দেখেছেন

Image

জমি-জমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে জয়পুরহাটের পাঁচবিবির সালেহ মোহাম্মদ হত্যা মামলায় ১৭ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা করে জরিমানাও করা হয়।

বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ-২ আদালতের বিচারক আব্বাস উদ্দীন এ রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্তদের বাড়ি জেলার পাঁচবিবি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায়। এদের মধ্যে ২ জন পলাতক রয়েছেন। এছাড়া এ মামলা থেকে ৫ জনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

আদালত ও মামলার বিবরণে জানা গেছে, জয়পুরহাটের পাঁচবিবি উপজেলার আয়মারসুলপুর চকপাড়া গ্রামের মৃত আলতাফের ছেলে সালেহ মোহাম্মদের সাথে আসামীদের দীর্ঘদিন থেকে জমি-জমা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এ সংক্রান্ত একটি মামলা আদালতে বিচারাধীন ছিল। এরই জের ধরে ২০০৯ সালের ২ মে সকালে সালেহ মোহাম্মদ তার নিজ শ্যালো মেশিন ঘর থেকে বাড়ি ফেরার পথে আসামি মোহাম্মদ আলীর বাড়ির সামনে ওৎ পেতে থাকা সকল আসামিরা তাকে ধরে নিয়ে গিয়ে আমগাছের সাথে হাত-পা বেঁধে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে।

এসময় সালেহ মোহাম্মদ পানি খেতে চাইলে আসামিরা পানির বদলে মরিচ গুলানো পানি জোড়পূর্বক পান করালে সে ছটফট করতে করতে নিস্তেজ হয়ে পড়ে। এরপর স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা যায়। এ ঘটনায় একই তারিখে পাঁচবিবি থানায় ২২ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের ভাই আজিজুল হক। এ মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে আদালত এ রায় দেন।

যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ১৭ আসামিরা হলেন- হাদিউজ্জামান প্রাং, আরিফুল, আবু নাছের প্রাং, শাহজাহান আলী, আশরাফ আলী প্রাং, লাল মোহাম্মদ, মোহাম্মদ আলী প্রাং, জহির প্রাং, শাসছুল আলম প্রাং, সায়েম উদ্দিন প্রাং, ওবাইদুল প্রাং, সইম প্রাং, রহিম প্রাং, আবু সাঈদ প্রাং, আবু বক্কর প্রাং, রানু বেগম ও সাহেরা বেগম।

এছাড়া খালাসপ্রাপ্ত ৫ আসামি হলেন- অমিছা বেগম, শহিদুল ইসলাম, বেলছি বেগম, হাফেজা ফকির ও সবদুল ফকির।


আরও খবর



ভুল খানকে বিয়ে করেছ; কারিনাকে কেন বলেছিলেন সালমান?

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৮জন দেখেছেন

Image

ব্যবসায়িক সাফল্যের নিরিখে হিন্দি সিনেমার ইতিহাসে নজির গড়ে কারিনা কাপুর ও সালমান খান জুটির ‘বজরঙ্গী ভাইজান’। ২০১৫ মুক্তির পর প্রায় ৩০০ কোটি টাকার ব্যবসা করে ছবিটি। এর আগে সালমানের ‘দাবাং ২’ ছবিতে একটি আইটেম ডান্স করেছিলেন কারিনা। শুধু তাই নয়, সালমান-কারিনা জুটির ‘বডিগার্ড’ ছবিটিও বক্স অফিসে হিট হয়েছিল।

ক্যারিয়ারের চূড়ান্ত সময়ে হঠাৎ ২০১২ সালে সাইফ আলি খানকে বিয়ে করেন বলিউডের বেবো। কারিনা সাইফকে বিয়ে করাতেই কি রুষ্ট হন সালমান? সাইফের সঙ্গে বিয়ের পরই সালমান কারিনাকে বলেছিলেন, ‘ভুল খানকে বিয়ে করে ফেলেছ।’

পর্দায় সালমান-কারিনা জুটি হিট। ব্যক্তিগত জীবনেও সালমানের সঙ্গে হৃদ্যতাপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে কারিনার। শুধু সালমান নন, আমির খান ও শাহরুখ খানের সঙ্গেও একাধিক হিট ছবি করেছেন কারিনা। বিয়ের বছরেই সাইফের সঙ্গে জুটি বেঁধে ‘এজেন্ট বিনোদ’ ছবিতে কাজ করেন কারিনা। বাকি তিন খানের সঙ্গে তার ছবি হিট হলেও সাইফের সঙ্গে তার ছবি একেবারেই ফ্লপ করে।

সাইফকে বিয়ের পরের বছর ২০১৩ সালে ‘বিগ বস ৬’-এ সালমানের রিয়ালিটি শোয়ে ‘দাবাং ২’ ছবির ‘ফেভিকল সে’ গানটির প্রচারে এসে সালমানের প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয় কারিনাকে। সালমান অভিনেত্রীকে বলেন, তিনি এ মঞ্চ থেকে সাইফকে কিছু বলতে চান কি না? হেসে কারিনা বলেন, ‘হাই সইফ।’ করিনার স্বল্প উত্তর শুনে হতাশ হয়ে সালমান বলেন, ‘তুমি ভুল খানকে বিয়ে করেছ।’ রসিকতা করা সালমানের স্বভাব। মজা করেই কারিনাকে এ কথা বলেছিলেন অভিনেতা।


আরও খবর

যে কারণে টাকা ফিরিয়ে দিলেন জয়া

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

ঈধিকার পর এবার মিমি

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




কারামুক্ত মির্জা ফখরুল-আমীর খসরু

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২৪জন দেখেছেন

Image

জামিনে কারামুক্ত হলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। বৃহস্পতিবার বিকেল পৌনে চারটার দিকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার (কেরানীগঞ্জ) থেকে জামিনে মুক্তি লাভ করেন মির্জা ফখরুল ও আমীর খসরু।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) সিনিয়র জেল সুপার সুভাষ কুমার ঘোষ জানান, বিকাল পৌনে চারটার দিকে বিএনপির মহাসচিব ফখরুল ও আমীর খসরু কারাগারের মূল ফটক থেকে বেরিয়ে যান। তারা দু’জনই কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হলেন। উল্লেখ্য, গত ২৮ অক্টোবর রাজধানীতে বিএনপির মহাসমাবেশ ঘিরে সহিংসতা হলে ২৯ অক্টোবর মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে গুলশানের বাসভবন থেকে গ্রেফতার করে গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)।

এছাড়া গত ২ নভেম্বর দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরীকেও গুলশানের বাসা গ্রেফতার করা হয়। প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলাসহ বিভিন্ন অভিযোগে পুলিশের করা মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয় বিএনপির এই দুই নেতাকে।


আরও খবর