Logo
আজঃ শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম কিনলেন যেসব অভিনেত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭৬জন দেখেছেন

Image

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে এমপি হতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন শোবিজ তারকারা। সে দৌড়ে মঙ্গলবার মোট ১২জন তারকাশিল্পী আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনেছেন।

মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে গুলিস্তানের বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে দলীয় মনোনয়ন ফরম তুলেছেন চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস, নিপুণ আক্তার, সোহানা সাবা, শাহানূর ও উর্মিলা শ্রাবন্তী কর।

এ সময় অপু বিশ্বাস বলেন, রাজশাহী বিভাগের বগুড়া জেলা থেকে মনোনয়নপত্র কিনলাম আমি। আমার এলাকার মানুষ আমাকে অনেক সহযোগিতা করেছেন। দোয়া রাখবেন, আমি যেন এলাকার মানুষের পাশে দাঁড়াতে পারি। আর আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন বাস্তবায়নে যেন কাজ করতে পারি।

সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনেছেন অভিনেত্রী নিপুন আক্তার। তিনি সঙ্গে রিয়াজকেও নিয়ে গিয়েছিলেন সেখানে।

এদিকে সকাল সোয়া ১০টার দিকে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে অবস্থিত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দোতলা থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন চিত্রনায়িকা সোহানা সাবা ।

ফরম সংগ্রহ শেষে সোহানা সাবা বলেন, আমার বাবা একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা। তিনি ১৩ বছর বয়সে মুক্তিযুদ্ধে অংশ নিয়েছেন। তিনি শুধু আওয়ামীলীগপন্থিই ছিলেন না, তিনি দেশপ্রেমিক ছিলেন। দেশের কথা ভাবলে আওয়ামী লীগের কথা ভাবতে হবে।

এটা ছাড়া অন্য কোনো উপায় নেই। আমরা খুবই ভাগ্যবান যে টানা ১৫ বছর ধরে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে, ইনশাল্লাহ আরও পাঁচ বছরও থাকবে। সেজন্য আমি অবশ্যই চাই আওয়ামী লীগ থেকে প্রার্থী হতে।

আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেত্রীদের বাদ দিয়ে কেন আপনাকে মনোনয়ন দেওয়া হবে, এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমিও কাজ করতে চাই বা করতে পারি। অনেকেই আমার থেকে বয়সে ও কাজে সিনিয়র আছেন। তার মানে এই নয় যে, নতুনরা কাজ করবে না বা এগিয়ে যাবে না।

নতুনদেরও সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। সব জেনারেশন যদি হাতে হাত রেখে একসঙ্গে কাজ করে, তাহলে দেশের জন্য ভালো কিছুই হবে।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন ফরম কিনেছেন অভিনেত্রী সৈয়দা কামরুন নাহার শাহনূর। মঙ্গলবার সকাল ১১টার পর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে অবস্থিত আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র কিনেছেন তিনি।

মনোয়ন ফরম সংগ্রহের পর শাহনূর বলেন, আমি মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সন্তান। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত। বিরোধী দলের আগুন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধেও সক্রিয়ভাবে মাঠে ছিলাম। আমি নিজেও সামাজিক কাজের সঙ্গে যুক্ত। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মনোনীত করলে আমি তার কথা অনুসারে কাজ করতে চাই। এছাড়া নারীদের জন্য কাজ করতে চান বলে জানান তিনি।

উর্মিলা বলেন, আমার লম্বা একটা পলিটিক্যাল জার্নি রয়েছে। সবাই কমবেশি জানেন আমি ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে বর্তমানে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় মহিলা বিষয়ক সংগঠনের সাংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদিকার দায়িত্ব পালন করছি। দীর্ঘদিন মাঠের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকার পর এবার সংরক্ষিত আসনে মনোনয়ন সংগ্রহ করলাম।

এদিকে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত মনোনয়ন ফরম তুলেছেন চিত্রনায়িকা সুবর্ণা মুস্তাফা, তারিন জাহান, তানভিন সুইটি, রোকেয়া প্রাচী, মেহের আফরোজ শাওন, জাকিয়া মুন, শামিমা তুষ্টিসহ মোট ১২ জন।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় সূত্র বলছে, সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত দেশের ৮টি বিভাগের ১৭১টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে। এর মধ্যে প্রথম এক ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মননের ফর্ম বিক্রি হয়েছে ঢাকা বিভাগে, ৫০টি। প্রথম ঘণ্টায় দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগ থেকে, ৩৪টি।

এ ছাড়া রাজশাহী বিভাগে ২২টি, খুলনা বিভাগের ১৭টি, ময়মনসিংহ বিভাগের ১৬টি, রংপুর বিভাগের ১৪টি, বরিশাল বিভাগের ১৩টি এবং সিলেট বিভাগে ৫টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়েছে।


আরও খবর



সাবেক ডাচ প্রধানমন্ত্রী স্ত্রীকে নিয়ে স্বেচ্ছায় মৃত্যুবরণ করেন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩১জন দেখেছেন

Image

এক সঙ্গে ৭০ বছর কাটিয়ে দিলেন। কিন্তু তারপর আর বাঁচার ইচ্ছে হারিয়ে ফেলেন তারা। তাই দুইজন একসঙ্গে স্বেচ্ছায় মৃত্যুর সিদ্ধান্ত নেন। জীবনে রাষ্ট্র ক্ষমতা থেকে শুরু করে সব সুযোগ সুবিধা ভোগ করেন। তারপর কেনো তারা এমন সিদ্ধান্ত নিলেন।

এ জীবনের থেকে মরণও ভালো! একইসাথে এমন সিদ্ধান্তে পৌঁছেছিলেন নেদারল্যান্ডসের সাবেক প্রধানমন্ত্রী দ্রিস ভান অঘ্ট এবং তার স্ত্রী ইউজিনি। তাই ৭০ বছরের দাম্পত্য জীবনের ইতিও টানলেন একসাথে। হাতে হাত রেখে স্বেচ্ছায় মৃত্যুকে বরণ করে।

গত সোমবার দ্রিস-ইউজিনি আইনি পথে নিষ্কৃতি মৃত্যুর (ইউথেনেশিয়া) পথ বেছে নিয়েছেন বলে জানা গেল প্রেমের দিবসে। দু’জনেরই বয়স হয়েছিল ৯৩ বছর। দীর্ঘ দিন ধরে তারা বার্ধক্যজনিত নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। দ্রিস একটি মানবাধিকার সংস্থার কর্ণধার ছিলেন। তাদেরই তরফে বিবৃতি প্রকাশ করে জানানো হয়েছে, কোনো ‘স্পেশাল ক্লিনিক’ নয়, গ্রামের বাড়িতেই নিষ্কৃতি মৃত্যুর পথ বেছেছেন দু’জনে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মৃত্যুর সময়ও পরস্পরের হাত ধরে রেখেছিলেন দ্রিস-ইউজিনি। একইসাথে বিষ ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে তারা মৃত্যুবরণ করেন।  ১৯৭৭ থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত নেদারল্যান্ডসের প্রধানমন্ত্রী পদে ছিলেন দ্রিস। ‘ক্রিশ্চান ডেমোক্র্যাটিক আপিল পার্টি’র প্রতিষ্ঠাতা নেতাও ছিলেন তিনি। নিষ্কৃতি-মৃত্যুর প্রবণতা ক্রমশই বাড়ছে নেদারল্যান্ডসে। গত বছর সরাকরি অনুমতি নিয়ে ২৯ যুগল স্বেচ্ছায় মৃত্যুবরণ করেছিলেন সে দেশে।


আরও খবর

ভেনেজুয়েলায় সোনার খনি ধসে নিহত ২৩ জন

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক প্রস্তুতি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৯জন দেখেছেন

Image

‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস’ উপলক্ষে ২১ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৫টা থেকে নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দফতরে অনুষ্ঠান হবে। জাতিসংঘের শীর্ষ কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকরা এতে অংশ নেবেন। অনুষ্ঠানে প্রবাসের বিশিষ্টজনেরাও থাকবেন বলে আয়োজকদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। বাঙালির মায়ের ভাষার জন্য অকাতরে রক্তদানের দিন বায়ান্নর ২১ ফেব্রুয়ারিকে গোটাবিশ্বের ভাষা সুরক্ষার দিন হিসেবে জাতিসংঘ স্বীকৃতি প্রদানের পর দিবসটি বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে উদযাপিত হচ্ছে। 

মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কন্স্যুলেটেও অনুষ্ঠান হবে। অস্থায়ীভাবে নির্মিত শহীদ বেদীতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করবেন প্রবাসীদের সাথে নিয়ে কন্স্যুলেটের কর্মকর্তারা। সে অনুষ্ঠানেও সকলকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। নিউইয়র্কস্থ মুক্তধারার পক্ষ থেকে এবারও বাংলাদেশের সাথে মিলিয়ে ২০ ফেব্রুয়ারি দুপুরে (বাংলাদেশে একুশের প্রথম প্রহর) জাতিসংঘ সদর দফতরের সামনে দ্যাগ হ্যামারসজোল্ড পার্কে অস্থায়ী শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণের কর্মসূচি রয়েছে। 

অপরদিকে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের উদ্যোগে এবারও মহান একুশে উদযাপনের বিস্তারিত কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হবে উডসাইডে কুইন্স প্যালেসে ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা থেকে একুশের প্রথম প্রহর পর্যন্ত। শতাধিক সংগঠন এতে অংশ নেবে। সাংস্কৃতিক পর্বে থাকবে বিপা, উদীচী, বহ্নিশিখা, বাফা, আড্ডা, শিল্পকলা একাডেমি এবং রবীন্দ্র একাডেমি। এর আগে ১১ ফেব্রুয়ারি জ্যাকসন হাইটস সংলগ্ন পিএস ৬৯এর মিলনায়তনে প্রবাস প্রজন্মের অংশগ্রহণে মহান ভাষা দিবস আলোকে চিত্রাঙ্কন, কবিতা আবৃত্তি, লিখন (বাংলা স্বরবর্ণ) প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। প্রবাসে ইতিমধ্যেই সমাদৃত ‘সম্মিলিত মহান একুশ উদযাপন’ কর্মসূচির ব্যাপারে বিস্তারিত জানতে সাঈদা আকতার লিলি, গাজী সামসউদ্দিন, মোল্লা মনিরুজ্জামান, তাজুল ইসলাম, মহিউদ্দিন দেওয়ান, স্বপন বড়ুয়া, মোহাম্মদ হোসেন খান প্রমুখের সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে। 

প্রবাসী বাংলাদেশিদের আমব্রেলা সংগঠন নিউইয়র্কস্থ ‘বাংলাদেশ সোসাইটি’র সম্মিলিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও মহান শহীদ দিবস পালন উপলক্ষে কমিউনিটির সামাজিক-সাংস্কৃতিক, ক্রিড়া, পেশাজীবী ও রাজনৈতিক সংগঠনের সাথে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় জানানো হয় ইতিমধ্যে প্রায় ৪০টি সংগঠন তাদের নাম নিবন্ধন করেছে। এসময় প্রবাসের সকল সংগঠনের কর্মকর্তাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলা হয়, আগামী ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে আগ্রহী সংগঠনের নাম নিবন্ধন করা যাবে। প্রতি বছরের ন্যায় এবারও নিবন্ধন ফি ১০০ ডলার ধার্য করা হয়েছে। উল্লেখ্য, প্রতি বছরের ন্যায় বাংলাদেশ সোসাইটির আয়োজনে এবারও আগামী ২০ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় উডসাইডের তিব্বত কমিউনিটি সেন্টারে যথাযোগ্য মর্যাদায় সম্মিলিত আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও মহান শহীদ দিবস পালন করা হবে। 

লসএঞ্জেলেস সিটি সংলগ্ন প্যারিস সিটির পাবলিক লাইব্রেরি চত্ত্বরে নির্মিত স্থায়ী শহীদ মিনারে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ এবং আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। মাতৃভাষা দিবস উদযাপন কমিটির প্রেসিডেন্ট শহীদ আহমেদ মিঠু এবং প্রতিষ্ঠাতা-প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ রহমান রাজু জানিয়েছেন, ভাষা আন্দোলনের সাথে প্রবাস প্রজন্ম এবং সিটির ভিনদেশীদের জানাতে ব্যাপক প্রস্তুতি চলছে। এলাকার নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরাও আসতে পারেন এ অনুষ্ঠানে। 

এদিকে, পেনসিলভেনিয়াস্থ সংবাদদাতা আশরাফুল ইসলাম আরিফ জানান, বৃহত্তর ফিলাডেলফিয়া সিটির ৬টি স্কুলে মাতৃভাষা দিবস উদযাপনের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়া হয়েছে। ‘বৈচিত্রে ঐক্য’ (ইউনিটি ইন ডাইভার্সিটি) স্লোগানে আন্তর্জাতিক বোঝাপড়াকে উৎসাহিত ও প্রচার করতে এই সিটির নর্থ ইস্ট উচ্চ বিদ্যালয়, রাউনহার্স্ট প্রাথমিক বিদ্যালয়, পেন আলেক্সান্দার মিডল স্কুল, অ্যালাইন লক স্কুল, হেনরি লিয়া স্কুল এবং আপারডারবি হাই স্কুলে অনুষ্ঠান হবে। এসব অনুষ্ঠানে নিজ নিজ মাতৃভাষা এবং সংস্কৃতির লালনের গুরুত্ব  নিয়ে আলোচনা করবেন বিষয়-বিশেষজ্ঞরা। শিক্ষক, স্কুল প্রশাসন, শিক্ষার্থী ছাড়াও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিরাও আমন্ত্রণ পাচ্ছেন একুশের এসব অনুষ্ঠানে।  

জানা গেছে, স্কুলসমূহে ভাষা দিবস উদযাপনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে উৎসাহিত করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন ফিলাডেলফিয়ায় বসবাসরত মূলধারার রাজনীতিক আবু আমিন রহমান। সাথে রয়েছেন সাংস্কৃতিক সংগঠক পার্থ দেবনাথ এবং কণ্ঠশিল্পী জলি দাস।


আরও খবর

ভাষা শহীদদের প্রতি মালয়েশিয়ায় শ্রদ্ধা

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বয়ান ও জিকির আসকারের মধ্যদিয়ে ইজতেমার দ্বিতীয় দিন চলছে

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪৬জন দেখেছেন

Image

টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে দেশ বিদেশী লাখ লাখ মুসল্লিদের পদচারণায় মুখরিত ইজতেমা ময়দান। জিকির আসকার ও ইবাদতের মধ্য দিয়ে  অতিবাহিত হচ্ছে দ্বিতীয় দিন। 

আজ শনিবার বাদ ফজর মুসল্লিদের উদ্দেশে বয়ান করেন ভারতের মাওলানা সাঈদ বিন সাদ সাহেব। বাংলা তরজমা করেন মুফতি ওসামা ইসলাম। 

আগামীকাল রবিবার সকাল সাড়ে দশটায় আখেরী মোনাজাতের মধ্যদিয়ে শেষ হবে বিশ্ব ইজতেমার উভয় পর্ব। কাল আখেরী মোনাজাতে অংশ নিতে মুসল্লির ঢল এখন টঙ্গী মুখী। মুসল্লিরা বাস, ট্রেন ও নৌ-পথে ময়দানে প্রবেশ শুরু করেছেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মো. মাহবুব আলম বলেন, মুসল্লিদের নিরাপত্তায় ময়দান ঘিরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রায় ছয় হাজার পুলিশ সদস্য মোতায়েন রয়েছে। এছাড়া র‌্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহনীর সদস্যরাও কাজ করছেন। ইজতেমা ময়দানের সব প্রবেশ পথে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা ও বিভিন্ন পয়েন্টে পর্যবেক্ষণ টাওয়ার স্থাপন করা হয়েছে। ময়দানে আসা মুসল্লিদের সেবায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ২৪ ঘণ্টা নিরাপত্তায় নিয়োজিত আছে।


আরও খবর

হাফেজ বশির আলজেরিয়ার পর ইরানে প্রথম

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ফের বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিলো ভারত

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩০জন দেখেছেন

Image

বাংলাদেশসহ ছয় দেশে সীমিত আকারে পেঁয়াজ রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিয়েছে ভারত। বাকী পাঁচ দেশ হলো শ্রীলঙ্কা, মরিশাস, বাহরাইন, নেপাল ও ভুটান।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুপারিশে সরকারি পর্যায়ে সীমিতভাবে পেঁয়াজ রপ্তানি করা হবে বলে টাইমস নাও-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ডিসেম্বরে ভারত পেঁয়াজ রপ্তানি বন্ধের যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিলো, সেই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত না হলেও, দ্বিপক্ষীয় উদ্দেশ্যে সীমিত পরিসরে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে।


আরও খবর



যাত্রীবেশে উঠে সর্বস্ব লুটে নেয় ‘মামা পার্টি’

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২২জন দেখেছেন

Image

‘ওরা ভাড়া করা গাড়ি নিয়ে যাত্রী সেজে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী নির্বাচিত রুটের ১-২ কিলোমিটার পরপর যাত্রী বেশে অবস্থান নিতেন। এরপর নির্জন স্থানে গাড়ি থামিয়ে অস্ত্র ও চেতনানাশক ওষুধ ব্যবহার করে যাত্রীদের অজ্ঞান করে মূল্যবান সামগ্রী ছিনিয়ে নিতেন।’ মঙ্গলবার দুপুরে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দীন।

তিনি জানান, প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাসে যাত্রী সেজে উঠে চেতনানাশক ওষুধ ব্যবহারের মাধ্যমে অজ্ঞান করে ছিনতাইয়ের ঘটনায় মামা পার্টির মূলহোতাসহ অজ্ঞান পার্টি চক্রের পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব। গ্রেপ্তাররা হলেন মো. রানা ওরফে মো. শাহীন ওরফে শাহীন রানা (৪৯), মো. মফিজুল ইসলাম ওরফে মো. ইসলাম ওরফে ইসলাম মিয়া (৪৮), মো. সাগর ওরফে হাবিবুর রহমান শেখ ওরফে মো. হাবিব (৫১), মো. ফারুক আহমদ ওরফে মো. ফারুক মিয়া ওরফে মো. ফারুক (৩৪) ও মো. আবুল কালাম (৫৩)।

অতিরিক্ত ডিআইজি বলেন, গত বছরের ২৬ জুন ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা এলাকায় মো. শাহিন রানা ওরফে তজ্জম ও মফিজুল ইসলাম ওরফে ইসলামসহ অন্যান্য আসামিরা যাত্রী সেজে সাদ্দাম শেখ নামের একজন ইজিবাইক চালকের ইজিবাইকটি ভাড়া করেন। তারা ইজিবাইকচালক সাদ্দামকে মারধর করে এবং একপর্যায় চেতনানাশক ওষুধ ব্যবহারের মাধ্যমে অচেতন করে একটি মেহগনি বাগানে ফেলে রেখে ইজিবাইকটি ছিনতাই করে পালিয়ে যান।

পরে ওইদিন আনুমানিক রাত সাড়ে ৮টার দিকে ভুক্তভোগী সাদ্দাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ফরিদপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। এছাড়া, আসামিরা নিহতের পরিবারের কাছে ছিনতাই করা ইজিবাইকটি ফেরত দেওয়ার কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন বিকাশ নম্বরে ৩৫ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেন। তিনি বলেন, হত্যার ঘটনা তদন্তকালে মামা পার্টি চক্রটি সম্পর্কে জানা যায়। এই মামা পার্টির মূলহোতা শাহিন রানা ওরফে তজ্জম এবং এ পার্টির সক্রিয় সদস্য ১০ জন।

র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক বলেন, মামা পার্টি খ্যাত একটি ছিনতাইকারী চক্র দীর্ঘদিন ধরে গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, শরীয়তপুর, ফরিদপুর ও মাদারীপুরসহ রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় প্রাইভেটকার/মাইক্রোবাস ভাড়া করে যাত্রী সেজে চেতনানাশক ওষুধ ব্যবহার করে ছিনতাইসহ সাধারণ মানুষের কাছ থেকে সর্বস্ব লুট করে আসছিল। সোমবার মাঝরাতে র‌্যাব-১০ এর একটি দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ও তথ্য-প্রযুক্তির সহায়তায় রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানাধীন শনিরআখড়া এলাকায় একাধিক অভিযান পরিচালনা করে মামা পার্টি খ্যাত ছিনতাইকারী চক্রের মূলহোতাসহ পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে।

এ সময় তাদের কাছ থেকে ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত একটি হাইস গাড়ি ও একটি করোলা প্রাইভেটকার, একটি হাতকড়া, চেতনানাশক ওষুধ (চার পাতার মোট ৪০টি), দুটি সুইচ গিয়ার চাকু, দুটি স্টিলের চাকু, একটি ক্ষুর, ছয়টি পুরাতন টাচ মোবাইল ফোন, পাঁচটি পুরাতন বাটন মোবাইল ও নগদ এক হাজার ৬০০ টাকা উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, গ্রেপ্তার শাহিন রানা চক্রটির মূল পরিকল্পনাকারী এবং তার নেতৃত্বে চক্রটি দীর্ঘদিন ধরে গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, মুন্সীগঞ্জ, শরীয়তপুর, ফরিদপুর, মাদারীপুর ও রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাস ভাড়া করে যাত্রী সেজে চেতনানাশক ওষুধ ব্যবহার করে ছিনতাই করে আসছিল। তাদের পরিকল্পনার অংশ হিসেবে প্রথমে তারা ছিনতাইয়ের জন্য উপযুক্ত ও নির্জন রুট সিলেক্ট করতেন। এক্ষেত্রে তারা রাত ৩টা থেকে সকাল ৭টার মধ্যে যেকোনো সময় এ নির্জন রুট বেছে নিতেন।

তারপর কখনো মফিজুলের প্রাইভেটকার ব্যবহার করতেন। আবার কখনো মফিজুলের মাধ্যমে অন্য কোনো প্রাইভেটকার ও মাইক্রোবাস ভাড়া নিতেন। এরপর মফিজুল এসব গাড়ি চালাতেন এবং শাহিন যাত্রী সেজে মফিজুলের পাশে বসে থাকতেন। অন্যরা তাদের পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী নির্বাচিত রুটের ১-২ কিলোমিটার পরপর যাত্রী বেশে অবস্থান করতেন।

পরবর্তী সময়ে সবাই একত্রিত হওয়ার পর যাত্রীদের কখনো দেশীয় অস্ত্রের ভয়ভীতি দেখিয়ে মারধর করে আবার কখনো চেতনানাশক ব্যবহার করে অচেতন করে সবকিছু লুট করে তাদের সুবিধাজনক নির্জন স্থানে ফেলে পালিয়ে যেতেন। গ্রেপ্তার শাহিন রানা ওরফে তজ্জম মামা পার্টি চক্রটির দলনেতা। শাহিন ২০০০ সালে একটি চুরির মামলায় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়ে পাঁচ বছর কারাভোগ করেন। এছাড়া তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় চুরি, ছিনতাই ও ডাকাতিসহ পাঁচটি মামলা রয়েছে বলে জানা যায়।

গ্রেপ্তার মফিজুল ইসলাম ওরফে ইসলাম পেশায় একজন ড্রাইভার। তিনি বিভিন্ন কোম্পানির গাড়িচালক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি বিভিন্ন ব্যক্তির গাড়ি ভাড়া করে অপরাধ করে আসছিলেন। পরবর্তী সময়ে তিনি মলম পার্টি, ছিনতাই, মাদক ব্যবসা, ডাকাতিসহ বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। এছাড়া, তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় ডাকাতি, ছিনতাই ও মাদক মামলাসহ তিনটি মামলা রয়েছে।৷

গ্রেপ্তার সাগর ওরফে হাবিবুর রহমান শেখ ওরফে হাবিব রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় ড্রাইভার হিসেবে কাজ করতেন। পেশার আড়ালে তিনি মামা পার্টির সক্রিয় সদস্য হিসেবে জড়িত ছিলেন। তিনি যাত্রীদের চেতনানাশক ব্যবহার করে ও দেশীয় অস্ত্রের ভয় দেখিয়ে যাত্রীদের কাছে থাকা বিভিন্ন মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনতাই করতেন। এছাড়া, তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি ও হত্যা চেষ্টাসহ চারটি মামলা রয়েছে।

গ্রেপ্তার ফারুক আহমদ ওরফে ফারুক মিয়া ওরফে ফারুক রাজধানী ঢাকাসহ আশপাশের বিভিন্ন এলাকায় রেন্ট-এ কারের গাড়ি চালাতেন। পেশার আড়ালে তিনি রাজধানীর সাইনবোর্ড ও কদমতলীসহ বিভিন্ন এলাকায় ভোর রাতে যাত্রীদের গাড়িতে তুলে বিভিন্ন মলম, চেতনানাশক ব্যবহার করে ও দেশীয় অস্ত্রে ভয় দেখিয়ে যাত্রীদের কাছে থাকা বিভিন্ন মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনতাই করতেন। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় পুলিশ পরিচয়ে ছিনতাই ও ডাকাতির দুটি মামলা রয়েছে।

গ্রেপ্তার আবুল কালাম পেশায় গাড়িচালক। পেশার আড়ালে তিনি রাজধানী ঢাকাসহ আশপাশের এলাকায় প্রাইভেটকারসহ বিভিন্ন যাত্রীবাহী গাড়িতে উঠে জুস, চিপসসহ বিভিন্ন প্রকার খাদ্যদ্রব্যের সঙ্গে কৌশলে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে যাত্রীদের অচেতন করে তাদের কাছে থাকা টাকা ও মোবাইলসহ বিভিন্ন মূল্যবান জিনিসপত্র ছিনতাই করতেন। তার বিরুদ্ধে রাজধানীর কদমতলী থানায় একটি ছিনতাই মামলা রয়েছে বলেও জানান র‌্যাব-১০ এর অধিনায়ক।


আরও খবর