Logo
আজঃ শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

৫ দফা দাবিতে বরিশালে গণসংহতি আন্দোলনের বিক্ষোভ সমাবেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৩জন দেখেছেন

Image

নিত্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণ, বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পায়তারা বন্ধ ও ভূমিহীনদের মাঝে খাস জমি বন্দোবস্তসহ ৫ দফা দাবিতে বরিশালে বিক্ষোভ সমাবেশ এবং মিছিল করেছে গণসংহতি আন্দোলন। পরে তারা একই দাবিতে জেলা প্রশাসক বরাবর একটি স্মারকলিপি প্রদান করেন। 

৫ দফা দাবিতে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর সদর রোডের অশ্বিনী কুমার হলের সামনে এক বিক্ষোভ সমাবেশের আয়োজন করে জেলা গণসংহতি আন্দোলন।

সংগঠনের জেলা সমন্বয়ক দেওয়ান আবদুর রশিদ নিলুর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা কমিটির নির্বাহী সমন্বয়কারী আরিফুর রহমান মিরাজ, কেন্দ্রিয় কমিটির সদস্য বাচ্চু ভূঁইয়া, ইয়াসমিন সুলতানা ও জেলা ছাত্র ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক রাইদুল ইসলাম সাকিবসহ অন্যান্যরা। সমাবেশে বক্তারা নিত্য পন্যের মূল্য কমানো এবং বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পায়তারা বন্ধের দাবি জানান। একই সঙ্গে ভূমিহীনদের মাঝে খাস জমি বন্দোবস্ত দিতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তারা।

সমাবেশ শেষে একই দাবিতে সদর রোডসহ বিভিন্ন সড়কে একটি বিক্ষোভ মিছিল করেন তারা। পরে জেলা প্রশাসকের কাছে দাবি সংবলিত একটি স্মারকলিপি দেন গণসংহতি আন্দোলনের নেতারা।


আরও খবর

মহাসড়ক ফাঁকা, আছে বিজিবির টহল

মঙ্গলবার ৩১ অক্টোবর ২০২৩




প্রথম আর্ট কলেজ চালু করল সৌদি আরব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪৫জন দেখেছেন

Image

প্রথম আর্ট কলেজ চালু করল সৌদি আরব। রাজধানী রিয়াদের কিং সৌদ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশেষায়িত এই আর্ট কলেজ চালু করা হয়েছে। দেশটির সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় এই কলেজের জন্ম হল।

এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক উপমন্ত্রী হামেদ বিন মোহাম্মদ ফয়েজ এবং কিং সৌদ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট ড. বদরান আল-ওমর। এছাড়া অনুষ্ঠানে যোগ দেন দেশটির সংস্কৃতি ও শিল্প অনুরাগীরা।

ফয়েজ তার বক্তব্যে আর্ট সম্পর্কিত প্রতিষ্ঠানের তাৎপর্যের ওপর জোর দেন। তিনি বলেন, সৌদি আরবের ভিশন ২০৩০ বাস্তবায়নে সংস্কৃতি ও শিল্প নিয়ে সংস্কৃতি মন্ত্রী প্রিন্স বদর বিন আবদুল্লাহ বিন ফারহানের প্রতিশ্রুতির প্রতিফলন এই আর্ট ইনস্টিটিউট।

তিনি বলেন, এই ইনস্টিটিউট হবে বিজ্ঞান ও সংস্কৃতির মধ্যে সংমিশ্রণের সূচনা। এই কলেজে ডিজাইন, পারফরমিং আর্টস এবং ভিজ্যুয়াল আর্ট বিষয়ক বিভাগ থাকবে।


আরও খবর

ভেনেজুয়েলায় সোনার খনি ধসে নিহত ২৩ জন

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




বুয়েট শিক্ষার্থী সানির মৃত্যু: তদন্ত প্রতিবেদনের সময় পেছাল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image

দোহারের মৈনট ঘাটে পদ্মার পানিতে ডুবে বুয়েটের শিক্ষার্থী তারিকুজ্জামান সানির মৃত্যুর ঘটনায় করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার তারিখ পিছিয়ে আগামী ৭ মার্চ করেছেন আদালত। 

মঙ্গলবার মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল। তবে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কুতুবপুর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির এসআই (নিরস্ত্র) জহিরুল ইসলাম প্রতিবেদন দিতে পারেননি। এজন্য ঢাকার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এম সাইফুল ইসলামের আদালত প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য নতুন এদিন ধার্য করেন। 

দোহার থানার আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক নুরুন্নাহার মনি বিষয়টি জানান। 

এ মামলার আসামিরা হলেন- শরীফুল হোসেন, শাকিল আহম্মেদ, সেজান আহম্মেদ, রুবেল, সজীব, নুরুজ্জামান, নাসির, মারুফ, আশরাফুল আলম, জাহাঙ্গীর হোসেন লিটন, নোমান, জাহিদ, এটিএম শাহরিয়ার মোমিন, মারুফুল হক ও রোকনুজ্জামান ওরফে জিতু। এ মামলার ১৫ আসামি বর্তমানে কারাগারে আছেন। 

মামলার সূত্রে জানা যায়, ২০২২ সালের ১৪ জুলাই একসঙ্গে ১৫-১৬ যুবক পদ্মা নদীতে ঘুরতে যায়। সন্ধ্যার পর সানি নামে ওই বুয়েট শিক্ষার্থী নিখোঁজ হয়। রাতেই স্থানীয়দের দেওয়া খবরে ঘটনাস্থলে পৌঁছে দোহার থানা পুলিশ। এরপর ঘটনাস্থলে পৌঁছে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। 

১৫ জুলাই সকালে সানির লাশ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস ডুবুরি দল। সুরতহাল শেষে ওই বুয়েট শিক্ষার্থীর লাশ তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। 

এ ঘটনায় ওই দিন বিকালে সানির বড় ভাই হাসাদুজ্জামান ১৫ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা করেন।


আরও খবর

চবি ছাত্রলীগে ফের উত্তেজনা

সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




জাবিতে কবিতা আবৃত্তি ও সঙ্গীতের মাধ্যমে ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী সমাবেশ

প্রকাশিত:শনিবার ১০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৪১জন দেখেছেন

Image

সাভার (ঢাকা) প্রতিনিধি : কবিতা আবৃত্তি ও সঙ্গীতের মাধ্যমে ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে সমাবেশ করেছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) শিক্ষার্থীরা।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন চত্বরে এ প্রতিবাদী সাংস্কৃতিক সমাবেশ আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর প্ল্যাটফর্ম ‘জাহাঙ্গীরনগর সাংস্কৃতিক জোট’। সমাবেশে বক্তরা পাঁচটি দাবি জানায়।

দাবিগুলো হলো- চলমান ধর্ষণের ঘটনার সুষ্ঠু সুরাহা এবং জড়িত সকলকে দ্রুত বিচারের আওতায় আনা, যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেল কার্যকর করা ও  পূর্বের সকল অভিযোগ নিষ্পত্তি করা, বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা ও দায়িত্ব অবহেলাকারীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া,  হল থেকে অছাত্রদের বিতাড়িত করে সিট সংকট নিরসন করা ও ক্ষমতাসীন ছাত্র সংগঠনের দৌরাত্ম্য নিরসনে পদক্ষেপ নেওয়া।

সমাবেশে আয়োজকরা জানান, বিশ্ববিদ্যালয়ে চলমান সাংস্কৃতিক সংকট এবং ধর্ষণ ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে মানুষকে গর্জে ওঠার আহ্বান জানানোর জন্যই এই আয়োজন করা হয়েছে।

সমাবেশে জাহাঙ্গীরনগর থিয়েটারের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ ইসলাম মেঘ বলেন, ’ধর্ষণ ও অন্যান্য অপরাধ একদিনে ঘটেনি। তিলে তিলে সব অপরাধ একত্রিত হয়ে ধর্ষণে পরিণত হয়েছে। ধর্ষণের পিছনে দায়ী ক্ষমতাসীন ছাত্রসংগঠনের মদদ। ধর্ষণ ও মাদকমুক্ত ক্যাম্পাস গড়ে তুলতে হলে ক্ষমতাসীনদের ছাত্রসংগঠনের বিরুদ্ধে আমাদের  দাঁড়াতে হবে। আমাদের আন্দোলন শুধু ধর্ষণের বিরুদ্ধে নয়, আমাদের আন্দোলন অছাত্র, মাদক ও সেই প্রশাসনের বিরুদ্ধে যারা মাহমুদুর রহমান জনির মতো যৌন নিপীড়কের আশ্রয়দাতা।


আরও খবর



কোরিয়াকে হারিয়ে স্বপ্নের ফাইনালে জর্ডান

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৫৮জন দেখেছেন

Image

দুবারের চ্যাম্পিয়ন দক্ষিণ কোরিয়াকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো এশিয়ান কাপের স্বপ্নের ফাইনালে জর্ডান। কাতারের আল রাইয়ানে প্রথম সেমিফাইনালে তারকাবহুল কোরিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়েছে আরব দেশটি।

শক্তি, সামর্থ্য, পরিসংখ্যান; সব কিছুর বিচারে পিছিয়ে থেকে সেমিফাইনালে দক্ষিণ কোরিয়ার মুখোমুখি হয় জর্ডান। বল দখলে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রাধান্য থাকলেও আক্রমনের সুযোগ তৈরিতে এগিয়ে ছিলো জর্ডান। তবে প্রথমার্ধ শেষ হয় গোলশূন্য স্কোরলাইনে।

দ্বিতীয়ার্ধে ডেডলক ভাঙ্গে ৫৪ মিনিটে। দারুণ ফিনিশিংয়ে জর্ডানকে লিড এনে দেন আল-নিয়ামাত। ৬৬ মিনিটে দ্বিতীয় গোল পায় জর্ডান। চমৎকার গোলে স্কোরশিটে নাম তোলেন মুসা আল-তামারি।

হারের পর জর্ডানকে অভিনন্দন জানিয়েছেন দক্ষিণ কোরিয়ার তারকা ফরোয়ার্ড সন হিয়ুন মিন। ফিফা র‍্যাঙ্কিংয়ে জর্ডানের অবস্থান ৮৭ নম্বরে এবং কোরিয়ার অবস্থান তেইশে।


আরও খবর

আইপিএল শুরুর তারিখ নির্ধারণ

বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




চালের বস্তায় দাম-জাতসহ ৬ তথ্য লেখা বাধ্যতামূলক করলো সরকার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৬জন দেখেছেন

Image

চালের দাম সহনশীল ও যৌক্তিক পর্যায়ে রাখতে ধানের নামেই চাল বাজারজাত নিশ্চিত করতে আগামী ১৪ এপ্রিল (১ বৈশাখ) থেকে বস্তার ওপর ছয়টি তথ্য লেখা বাধ্যতামূলক করেছে সরকার।

বস্তায় উৎপাদনকারী মিলের নাম, জেলা ও উপজেলার নাম, উৎপাদনের তারিখ, মিল গেট মূল্য এবং ধান বা চালের জাত উল্লেখ করার নির্দেশনা দিয়ে সরকারি বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) পরিপত্র জারি করেছে খাদ্য মন্ত্রণালয়।

রাইস মিল (অটোমেটিক ও হাস্কিং) থেকে পাইকারি ও খুচরা পর্যায়ে সরবরাহকৃত চালের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা এবং ‘উৎপাদন ও সরবরাহ’ মূল্য অবহিতকরণ সংক্রান্ত পরিপত্রে স্বাক্ষর করেছেন মন্ত্রণালয়ের সচিব ইসমাইল হোসেন। এতে বলা হয়, সম্প্রতি দেশের চাল উৎপাদনকারী কয়েকটি জেলায় পরিদর্শন করে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে, বাজারে একই জাতের ধান থেকে উৎপাদিত চাল ভিন্ন ভিন্ন নামে ও দামে বিক্রি হচ্ছে। 

চালের দাম অযৌক্তিক পর্যায়ে গেলে বা অকস্মাৎ বৃদ্ধি পেলে মিলার, পাইকারি বিক্রেতা, খুচরা বিক্রেতা একে অপরকে দোষারোপ করছেন। এতে ভোক্তাগণ ন্যায্যমূল্যে পছন্দমত জাতের ধান, চাল কিনতে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছেন এবং অনেক ক্ষেত্রে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন। এ অবস্থার উত্তরণের লক্ষ্যে চালের বাজার মূল্য সহনশীল ও যৌক্তিক পর্যায়ে রাখতে, ধানের নামেই যাতে চাল বাজারজাতকরণ করা হয়, তা নিশ্চিত করার উদ্দেশ্যে এবং এ সংক্রান্ত কার্যক্রম মনিটরিংয়ের সুবিধার্থে ছয় নির্দেশনা দেওয়া হয়।

১. চালের উৎপাদনকারী মিলাররা গুদাম হতে বাণিজ্যিক কাজে চাল সরবরাহের প্রাক্কালে চালের বস্তার ওপর উৎপাদনকারী মিলের নাম, জেলা ও উপজেলার নাম, উৎপাদনের তারিখ, মিল গেট মূল্য এবং ধান/চালের জাত উল্লেখ করতে হবে। ধানের জাতের নাম, প্রস্তুতকারক, ঠিকানা (উপজেলা ও জেলা), নিট ওজন, উৎপাদনের তারিখ, মিল গেট মূল্যের এই তথ্যগুলো ছক মোতাবেক লেখা থাকবে।

২. বস্তার ওপর উল্লিখিত তথ্যাদি কালিতে হাত দিয়ে লেখা যাবে না।

৩. চাল উৎপাদনকারী সকল মিল মালিক (অটো/হাস্কিং) কর্তৃক সরবরাহকৃত সকল প্রকার চালের বস্তা/প্যাকেটের (৫০/২৫/১০/৫/২/১ কেজি ইত্যাদি) ওপর উল্লিখিত তথ্যাদি মুদ্রিত করতে হবে।

৪. কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রেও একই নির্দেশনা প্রতিপালন করতে হবে। এ ক্ষেত্রে মিল গেট দামের পাশাপাশি প্রতিষ্ঠান চাইলে সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য উল্লেখ করতে পারবে।

৫. এ পরিপত্রের আলোকে সকল জেলা প্রশাসক/উপজেলা নির্বাহী অফিসার/আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক/জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক/ উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক। খাদ্য পরিদর্শকগণ পরিদর্শনকালে এ বিষয়টি নিশ্চিত করবেন। এর ব্যত্যয় ঘটলে ‘খাদ্যদ্রব্য উৎপাদন, মজুত, স্থানান্তর, পরিবহন, সরবরাহ, বিতরণ, বিপণন (ক্ষতিকর কার্যক্রম প্রতিরোধ) আইন, ২০২৩’ এর ধারা ৬ ও ধারা ৭ মোতাবেক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবেন।

৬. আগামী ১৪ এপ্রিল (০১ বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ) তারিখ থেকে এ পরিপত্রের নির্দেশ আবশ্যিকভাবে প্রতিপালন করতে হবে।


আরও খবর